Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

Banglanews24.com:::::::: রাজকীয় বিয়ের অনুষ্ঠান ভন্ডুলের হুমকি: নজরদারীতে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত যুবক

লন্ডন: ব্রিটেনের রাজ পরিবারের সদস্য প্রিন্স উইলয়ামের বিয়ের রাজকীয় অনুষ্ঠান ভন্ডুলের পরিকল্পনা করছে মুসলিম চরমপন্থিরা। আর এর নেতৃত্বের প্রথমসারিতে আছে এমন সন্দেহে ব্রিটিশ মিডিয়া ও পুলিশের কড়া নজরদারীতে রয়েছে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত এক যুবক।

আগামী ২৯ এপ্রিল প্রিন্স উইলিয়াম ও কেইট মিডলটনের রাজকীয় বিয়ের অনুষ্ঠান সামনে রেখে সারা ব্রিটেনে যখন  চলছে ব্যাপক আগ্রহ উদ্দীপনা, ঠিক তখনই রাজকীয় এই অনুষ্ঠান ভন্ডুল করতে মুসলিম মৌলবাদীদের হুমকি নিয়ে ব্রিটিশ পুলিশের উচ্চ পর্যায়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়।

মুসলিম চরমপন্থিরা ‘রয়েল ওয়েডিং’ এর দিন ওয়েস্ট মিনিষ্টার অ্যাবের সামনে বিক্ষোভ এর পাশাপাশি যুক্তরাজ্যের ইউনিয়ন পতাকা ও উইলিয়াম-কেইট এর কুশপুত্তলিকা দাহ করার পরিকল্পনা ঘোষণার পর বর্ণবাদী সংগঠন ইংলিশ ডিফেন্স লিগও (ইডিএল) এই পরিকল্পনা প্রতিরোধের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

চরমপন্থিদের যে সংগঠনটি রয়েল ওয়েডিং অনুষ্ঠান বানচালের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে, সেই সংগঠন ‘মুসলিম এগেইনস্ট ক্রুসেড’ গত নভেম্বর মাসে রয়েল এলভার্ট হলের সামনে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহত ব্রিটিশ সৈন্যদের স্মরণের প্রতীক ‘পপি ফুল’ পুড়িয়ে দিয়ে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি করেছিল। ঐ ঘটনায় দায়ে আদালত সংগঠনটির অন্যতম নেতা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত যুবক ইমদাদুর চৌধুরীকে ৫০ পাউন্ড জরিমানার দন্ডেও দন্ডিত করেন। রয়েল ওয়েডিং বানচালে ঘোষিত মুসলিম চরমপন্থিদের নতুন পরিকল্পনায়ও নেতৃত্ব দিচ্ছেন বাংলাদেশি ইমদাদুর এমনই সন্দেহ ব্রিটিশ পুলিশের।

বিষয়টি ব্রিটেনের মিডিয়ায়ও আলোচিত হচ্ছে।

‘মুসলিম এগেইনস্ট ক্রুসেড’ (এমএসি) রয়েল ওয়েডিং এর দিন ওয়েস্ট মিনিস্টার অ্যাবে’র সামনে সমাবেশ করার আবেদন জানালে প্রশাসন অবশ্য তাদের সেই আবেদন নাকচ করে দেয়। এরপরও ‘মুসলিম এগেইনস্ট ক্রুসেড’ বসে নেই, এমনই আশঙ্কা পুলিশের।

পুলিশ ধারণা করছে ওয়েস্ট মিনিস্টার অ্যাবের সামনে বিক্ষোভের অনুমতি না পেলেও কাছাকাছি কোথাও হয়তো মুসলিম চরমপন্থিরা এই বিক্ষোভ করতে পারে। আর যদি তাই হয়, তাহলে এই বিক্ষোভ প্রতিরোধে বর্ণবাদী সংগঠন ইংলিশ ডিফেন্স লিগও তাদের সর্বশক্তি নিয়ে মাঠে নামতে চাইবে, ফলে দিনটি হয়তো ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠতে পারে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে রয়েল ওয়েডিং কে ঘিরে দীর্ঘদিন যাবত একটি সুন্দর উৎসবমূখর দিন হবে এমনটাই ভাবনা অনেকের। কিন্তু তার মাঝে এমএসি’র হুমকি তাদের ঘুম হারাম করে দিয়েছে।

এমএসি ঐদিন যুক্তরাজ্যের ইউনিয়ন পতাকা, ব্রিটিশ রাজপরিবারের প্রতীক ও প্রিন্স উইলিয়াম ও কেইট মিডলটনের কুশপুত্তলিকা পোড়ানোর পরিকল্পনা করছে। এমএসি তাদের ওয়েবসাইটে রাজকীয় বিয়ে অনুষ্ঠানের দিনগণণা শুরু করেছে, যেখানে হিটলারের নাৎসী বাহিনীর প্রতীক
‘স্বস্তিকা’ পরিহিত  প্রিন্স হ্যারির একটি ছবি দেখানো হচ্ছে। ওয়েবসাইটে এমএসি’র বিবৃতিতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে ব্রিটিশ সেনাবাহিনী বিভিন্ন দেশে যে আগ্রাসনে লিপ্ত রয়েছে, সেই আগ্রাসন থেকে তাদের ফিরিয়ে আনার দাবি জানানো হয়েছে প্রিন্স উইলিয়ামের প্রতি। অন্যথায় যে স্বপ্ন নিয়ে রয়েল ওয়েডিং এর দিনের জন্যে দীর্ঘ অপেক্ষা ব্রিটিশ জনগনের, সেই স্বপ্নকে দুঃস্বপ্নে পরিণত করার হুমকি দেয়া হয়েছে এমএসি’র বিবৃতিতে।

এমএসি মূখপাত্র আবু জানদাল বলেছেন, ‘রয়েল ওয়েডিং এর দিন আমাদের বিক্ষোভে হাজারো মুসলমানের সমাবেশ ঘটবে বলে আমরা আশা করছি। আমরা এই বিক্ষোভে রাজপরিবারের পতাকা ও উইলিয়াম ও কেইট মিডলটনের কুশপুত্তলিকা দাহ করবো’।

তবে মেট্রোপলিটন পুলিশের এসিসটেন্ট কমিশনার লিয়ান ওয়েনস অবশ্য বলেছেন পতাকা পোড়ানোর কোন ঘটনা পুলিশ বরদাশত করবে না।

তিনি বলেন, পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় থামিয়ে সার্চ করার পরিকল্পনা নিয়েছে। মনিটরিং করছে সব স্যোশাল নেটওয়ার্ক।

রাজকীয় বিয়ে অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে মুসলিম চরমপন্থিদের বিক্ষোভ কর্মসূচি প্রতিরোধে বর্ণবাদী ইডিএল এর তৎপরতা নিয়েও পুলিশ সতর্ক তৎপরতা চালাচ্ছে বলে জানা গেছে। দুই সংগঠনের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি নিয়ে রয়েল ওয়েডিং এর দিন ব্যাপক নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে এমন আশঙ্কাই করছেন স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের প্রধান।

পুলিশ ২৯ এপ্রিল রাজকীয় বিয়ের অনুষ্ঠান শুরুর আগেই সন্দেহভাজনদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়ার চিন্তা করছে। এরমধ্যে চরমপন্থি সংগঠনগুলোর নেতৃস্থানীয়দের গৃহবন্দি ও রয়েল ওয়েডিং এর  দিন সকালে  তাদের গ্রেফতার করার পরিকল্পনা রয়েছে পুলিশের।

আগের এক বিক্ষোভে অংশ নেয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত চরমপন্থিদের প্রায় ৬০ জনের বিরুদ্ধে তাদের জামীনের শর্ত হিসেবে রয়েল ওয়েডিং এর দিন সিটি অব ওয়েষ্ট মিনিষ্টারে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে।

বাংলাদেশ সময় ২৩০০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০১১
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts