Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

Banglanews24.com:;;;;;;;;;;;;;বাংলানিউজকে অ্যাভিবুরি, রোশনারা, গিলিগানের শুভেচ্ছা

লন্ডন: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম শুধু বাংলাদেশের বা বাংলা ভাষাভাষী পাঠকেরই নয়, দৃষ্টি কেড়েছে ব্রিটেনের মূলধারার রাজনীতিক ও সাংবাদিকদেরও। ১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে বাংলানিউজের লন্ডন প্রতিনিধির কাছে এমনটাই জানালেন ব্রিটেনের খ্যাতিমান ব্যক্তিত্বরা।

শুক্রবার বাংলানিউজের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে অনলাইন নিউজ পোর্টালটির উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন আন্তর্জাতিক খ্যতিসম্পন্ন মানবাধিকার নেতা, ব্রিটেনের অলপার্টি পার্লামেন্টারি হিউম্যান রাইটস গ্র“পের ভাইস চেয়ার ও  হাউস অব লর্ডস এর প্রবীণ সদস্য লর্ড এরিক অ্যাভিবুরি, ব্রিটিশ পার্লামেন্টে একমাত্র বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি রোশনারা আলী ও ব্রিটেনের বিশ্বখ্যাত জাতীয় দৈনিক টেলিগ্রাফের লন্ডন এডিটর ও চ্যানেল-৪ খ্যাত সাংবাদিক অ্যান্ড্রু গিলিগান।

এই তিন খ্যতিমান ব্রিটিশ ব্যক্তিত্ব বিভিন্ন সময় দ্বি-ভাষিক বাংলানিউজের সংবাদ শিরোনাম হওয়ায় এই অনলাইন নিউজ পোর্টালটির সাথে ইতোমধ্যে ঘনিষ্ট পরিচিত হয়ে উঠেছেন। বাংলাদেশের রাজনীতির নিবিড় পর্যবেক্ষক প্রভাবশালী ব্রিটিশ রাজনীতিক লর্ড অ্যাভিবুরির সাথে যখনই বাংলাদেশের কোনও শীর্ষ ব্যক্তির সাক্ষাৎ কর্মসূচি চূড়ান্ত হয়, তখনই সেখানে আমন্ত্রিত হয় বাংলানিউজ। আর তাই প্রবীণ এই ব্রিটিশ রাজনীতিকের নিজস্ব ব্লগে প্রায়ই শোভা পায় বাংলানিউজের প্রতিবেদন।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ রাজনীতিক রোশনারা আলীর রাজনৈতিক কর্মকান্ড সম্পর্কে শুধু ব্রিটেনের বাঙালি কমিউনিটিই নয়, সদূর বাংলাদেশের জনগনের মধ্যেও রয়েছে ব্যাপক আগ্রহ। বাংলানিউজ তাই বিগত এক বছরে রোশনারার উল্লেখযোগ্য রাজনৈতিক, সামাজিক ও কমিউনিটি কর্মকান্ড বিভিন্ন সময় তুলে ধরেছে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্যে।

বাংলানিউজই বাংলাদেশের প্রথম কোনও সংবাদ মাধ্যম, যেটি অ্যান্ড্রু গিলিগানের মত আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কোন ব্রিটিশ সাংবাদিকের এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার প্রচার করে। ফলে বাংলানিউজের পরিচিতি বিস্তৃত হয় ব্রিটিশ মূলধারার সংবাদ মাধ্যমেও। বাংলানিউজ পাঠকদের জন্যে বাংলার পাশাপাশি ইংরেজী ভাষায়ও নিউজ প্রচার করায় ব্রিটেনের এই তিন খ্যাতিমান ব্যক্তিও ব্যাপক আগ্রহী হন বাংলানিউজের প্রতি। ফলে অনলাইন এই নিউজ পোর্টালটির ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর খবরে ব্যাপক উৎসাহ নিয়ে তারা শুভেচ্ছা জানান বাংলানিউজ প্রতিনিধিকে। তাদের শুভেচ্ছা ঢাকায় বাংলানিউজের চিফ এডিটরের কাছে পৌঁছে দিতে পৃথক পৃথক টেলিফোন বার্তায় তারা অনুরোধ জানান বাংলানিউজের লন্ডন প্রতিনিধিকে।

১ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছায় লর্ড অ্যাভিবুরি বলেন, আমি বুঝতেই পারিনি বাংলানিউজের বয়স মাত্র এক বছর। সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে দুটো ভাষায় প্রচারিত এই সংবাদ মাধ্যমটির আধুনিকতা আমাকে মুগ্ধ করেছে। প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বাংলানিউজ পরিবারের প্রতি আমি আমার উষ্ণ অভিনন্দন জানাচ্ছি। অ্যাভিবুরি বলেন, ব্রিটেনের বাঙালি কমিউনিটি আজ ব্যাপক বিস্তৃত একটি কমিউনিটি, যা ব্রিটিশ মূলধারায় বিরাট অবদান রাখছে।

বাংলানিউজ অনলাইন নিউজ পোর্টাল হওয়ায় ব্রিটেনসহ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাংলাদেশিদের সাথে একটি যোগসূত্র হিসেবে কাজ করছে। বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি ভাষায়ও নিউজ প্রকাশের সুযোগ থাকায় বিদেশে বেড়ে ওঠা তরুণ বাংলাদেশি ও অবাঙালি অনেক পাঠকও বাংলানিউজের প্রতি ব্যাপক আগ্রহী বলে আমার ধারণা। বাংলাদেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও জনগণের মানবাধিকার রক্ষায় বাংলানিউজ সোচ্চার ভূমিকা পালন করবে এটিই আমার আশাবাদ। অ্যাভিবুরি বাংলানিউজের দীর্ঘ স্থায়িত্ব কামনা করেন।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একমাত্র ব্রিটিশ এমপি রোশনারা আলী বাংলানিউজের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশের এই সংবাদমাধ্যমটি সারা বিশ্বের বাঙালিদের মধ্যেই ব্যাপক জনপ্রিয় বলে আমি শুনেছি। ব্রিটেনের বাংলাদেশি কমিউনিটির বিভিন্ন খবরা খবর প্রায়ই বাংলাদেশের জনগণকে জানান দিচ্ছে বাংলানিউজ। এটি অবশ্যই একটি প্রশংসনীয় কাজ।
রোশনারা বলেন, `আমার নির্বাচনী এলাকার অধিকাংশ নাগরিকই বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত, আমি নিজেও তাদের একজন। আর তাই বাংলাদেশের সুখ দুঃখের সব প্রভাবই আমাদের উপর পড়ে।` ব্রিটিশ বাঙালিদের বাংলাদেশ প্রেমের কথা উল্লেখ করে রোশনারা বলেন, ‌`দেশে ফেলে আসা নিজেদের সহায় সম্পত্তি নিয়ে আমার নির্বাচনী এলাকার অনেকেই অনেক সমস্যার সম্মুখীন হন। বাংলানিউজ এইসব সমস্যা নিয়েও আগামীতে সরব হবে এটি আমার আশাবাদ।`
জলবায়ু পরিবর্তন-সৃষ্ট দুর্যোগে বাংলাদেশের ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থানের কথা উল্লেখ করে রোশনারা বলেন, `এই দুর্যোগ মোকাবেলায় উন্নত বিশ্ব যাতে বাংলাদেশের পাশে থাকে, সে বিষয়ে বিশ্বজনমত সৃষ্টির ক্যাম্পেইনের সহযাত্রী হবে বাংলানিউজ, প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এটিও আমার প্রত্যাশা।`
 
সাংবাদিক অ্যান্ড্রু গিলিগান বাংলানিউজকে একটি ‘ফান্টাস্টিক অনলাইন নিউজপোর্টাল’ হিসেবে অভিহিত করে বলেন, `অনন্তকাল এই সংবাদ মাধ্যমটি পাঠকের চাহিদা পূরণ করুক, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এটিই আমার কামনা।` গিলিগান বাংলানিউজ পরিবার ও এর পাঠকদেরও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানান।

এদিকে, ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার ডঃ সাইদুর রহমান খান ও বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাহিত্যিক আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরীও বাংলানিউজের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বাংলানিউজের লন্ডন প্রতিনিধিকে হাইকমিশনার বলেন, `বাংলানিউজ ১ম বছর অতিক্রান্ত করায় আমি খুব খুশি। বিগত বছরে লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশন আয়োজিত বিভিন্ন প্রোগ্রাম বাংলানিউজ গুরুত্বের সাথে কাভার করায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে হাইকমিশনার বলেন প্রতিটি নিউজ তাৎক্ষণিকভাবে পাঠকের কাছে পৌছে দেয়ায়ই প্রতিষ্ঠার এক বছরের মধ্যেই বাংলানিউজ এত জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।`
হাইকমিশনার বাংলাদেশে গণতন্ত্রের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে বাংলানিউজের চলমান ভূমিকার প্রশংসা করে বলেন, ভবিষ্যতেও অনলাইন এই নিউজ পোর্টালটি এই ভূমিকা অব্যাহত রাখবে বলে আমি আশা করি। হাইকমিশনার বাংলানিউজের দীর্ঘ স্থায়িত্ব কামনা করেন তাঁর শুভেচ্ছাবার্তায়।

বিশিষ্ট সাংবাদিক আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরী বাংলানিউজের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছায় বলেন, সংবাদ সংগ্রহ ও প্রচারে নিরপেক্ষতা গত এক বছরে বাংলানিউজের অনন্য বৈশিষ্ট হিসেবে দৃশ্যমান হয়েছে। বাংলানিউজের চিফ এডিটর আলমগীর হোসেনের নাম উল্লেখ করে গাফ্ফার চৌধুরী বলেন, `তাঁর নেতৃত্বে মাত্র এক বছরে বাংলানিউজ পাঠক মহলে যে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে যেকোন সংবাদ মাধ্যমের জন্যেই তা ঈর্ষনীয় বলে আমি মনে করি। দেশের শীর্ষ সংবাদমাধ্যম হিসেবেই বাংলানিউজ চিরকাল বেঁচে থাকুক এটিই আমার কামনা।`

এদিকে, বাংলানিউজের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আইরিশ নাগরিক ব্যারিস্টার নোরা শরীফ ছাড়াও ব্রিটেনের বাঙালি কমিউনিটির আরও কয়েকজন শীর্ষ ব্যক্তিও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বাংলানিউজ প্রতিনিধিকে জানানো শুভেচ্ছাবার্তায় তারা বাংলানিউজের উত্ত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, `শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্ব বাঙালিদের নিয়ে বাংলানিউজকে আরও সরব হতে হবে।` বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ব্রিটেন প্রবাসীদের অবদানের কথা ধারাবাহিকভাবে বাংলানিউজে তুলে ধরার আহবান জানান তারা।

কমিউনিটির শীর্ষ ব্যক্তিদের মধ্যে যারা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন ব্রিটেনে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক সুলতান শরীফ, দেশ টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহমুদ এ রউফ, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফারুক, বিএনপি’র সহ-সভাপতি তৈমুছ আলী, কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ এনাম, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের লোকমান হোসেইন, ওয়ার্কার্স পার্টি নেতা সাংবাদিক ইসহাক কাজল, জাসদের সৈয়দ আবুল মনসুর, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠির সভাপতি ডাঃ রফিকুল হাসান খান জিন্না, সত্যেন সেন স্কুল অব পারফর্মিং আর্টস এর সভাপতি হারুনুর রশীদ, বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের নুরুল ইসলাম, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সহ সভাপতি হরমুজ আলী, স্বাধীনতা ট্রাস্টের আনসার আহমেদ উল্লা, ইন্টারন্যাশনেল বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের সুজিত সেন, বাংলাদেশের বাইরের প্রাচীনতম বাংলা সাপ্তাহিক জনমত এর সম্পাদক নবাব উদ্দিন, বাংলা পোস্টের সম্পাদক তারেক চৌধুরী, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ইউকেবিডিনিউজের শুয়েব কবীর, বিবিসি এশিয়ান নেটওয়ার্কের সাংবাদিক ও মিলেনিয়াম সম্পাদক মাহবুব হোসেইন ও এনএনবি’র লন্ডন প্রতিনিধি মতিয়ার চৌধুরী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময় ১২৩০ ঘণ্টা, জুলাই ০২, ২০১১
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts