Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha


অলিম্পিক নগরীতে বিব্রত হতে পারে বাংলাদেশ


সৈয়দ আনাস পাশা, লন্ডন করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
লন্ডন: লন্ডন অলিম্পিকের আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে আগামী বুধবার লন্ডন আসছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার এ সফরকে কেন্দ্র করে পক্ষে বিপক্ষে চলছে টান টান উত্তেজনা। বিরোধী দল বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর এই সফরকে আন্দোলনের মোক্ষম সুযোগ হিসেবে কাজে লাগোতে ব্যাপক বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের প্রস্তুতি নিয়েছে। এতে অলিম্পিক নগরীতে বাংলাদেশের বিব্রত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনীতি বিশ্লেষকরা।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে লন্ডনে ঢুকতে না দেওয়ার দাবিতে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি খোদ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় পর্যন্ত ধর্ণা দিয়েছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে স্মারকলিপি দিয়ে শেখ হাসিনাকে লন্ডনে ঢুকতে না দেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে যুক্তরাজ্য বিএনপি’র পক্ষ থেকে।

শুধু তাই নয়, অলিম্পিককে কেন্দ্র করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র প্রধান ও সাংবাদিকদের পদভারে মুখরিত লন্ডনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী যাতে পদে পদে বিক্ষোভের মুখে পড়েন তার জন্যও ব্যাপক পরিকল্পনা নিয়েছে বিএনপির ব্রিটেন শাখা।

বিক্ষোভ কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ২৫ জুলাই হিথরো বিমানবন্দরে কালো পতাকা ও লাল কার্ড প্রদর্শন, যে হোটেলে প্রধানমন্ত্রী অবস্থান করবেন তার সামনে মহিলা দলের ঝাড়ু মিছিল ও অলিম্পিক স্টেডিয়ামের সামনে বিক্ষোভ। অলিম্পিক উদ্বোধনী দিনেও রয়েছে বিএনপি’র কর্মসূচি।

হোটেল থেকে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে যাওয়ার পথে বা স্টেশনের কাছে বিএনপি নেতাকর্মীদের প্রতিরোধের মুখে পড়তে পারেন শেখ হাসিনা। এ পথ দিয়েই এদিন অলিম্পিক স্টেডিয়ামে পৌছুবেন বিশ্বের অন্যান্য রাষ্ট্রনায়করা। তারাও দেখবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদের এই দৃশ্য। প্রধানমন্ত্রীর লন্ডন অবস্থানকালীন পুরো সময়ই তার হোটেলের সামনে বিএনপি’র বিক্ষোভ অবস্থানের কর্মসূচি রয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন যুক্তরাজ্য বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এ সালাম।

বাংলানিউজকে তিনি বলেন, “আইন-শৃংখলাসহ সারাদেশে মানবাধিকার পরিস্থিতির চরম অবনতি, তত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল, ইলিয়াস আলীসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের গুম, দুর্নীতিতে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতাসহ সর্বক্ষেত্রে এ সরকারের চরম ব্যর্থতার কারণেই প্রধানমন্ত্রীর বিরোদ্ধে বিক্ষোভ করবে যুক্তরাজ্য বিএনপি।”

প্রধানমন্ত্রীর সফরকে কেন্দ্র করে বিরোধী দল বিএনপি’র আন্দোলন কর্মসূচি নিয়ে লন্ডনের কমিউনিটিতে চলছে ব্যাপক জল্পনা কল্পনা। অলিম্পিককে কেন্দ্র করে প্রায় ২শ’ দেশের রাষ্ট্র প্রধান লন্ডন আসছেন। পাশাপাশি অলিম্পিক কাভার করতে লন্ডন সফর করছেন সারা বিশ্বের প্রায় ২১ হাজার সাংবাদিক। প্রায় ২শ’ দেশের রাষ্ট্র প্রধানের মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীই বিক্ষোভের মুখে পড়বেন, বিদেশি সাংবাদিকদের কাছে বিষয়টি খবরের রসদ হিসেবে গুরুত্ব পেতে পারে, এমনই আশঙ্কা করছেন অনেকে।

কমিউনিটির বিশিষ্টজনরা বলছেন, অলিম্পিক অতিথি হিসেবে মর্যাদাপূর্ণ এ সফরের সময় দেশের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বিএনপি হয়তো দলীয় রাজনৈতিক লাভ লোকসানের হিসেবই কষছে, কিন্তু সারা বিশ্বের সামনে দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে বিব্রত করার এ চেষ্টাকে দেশের জনগণ কেমনভাবে নেবে সে হিসেব হয়তো তাদের কাছে নেই।

রাজনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, অলিম্পিক অতিথি হিসেবে আগত প্রায় ২শ’ দেশের রাষ্ট্র নায়কের মধ্যে কেবল বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর প্রতিরোধের মুখে পড়ার ঘটনা বিশ্বের সামনে বাংলাদেশের মর্যাদাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করবে।

এদিকে যুক্তরাজ্য বিএনপি’র নেওয়া কর্মসূচি প্রতিরোধে স্থানীয় আওয়ামী লীগ কোন কর্মসূচি না নিলেও প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে তারাও নিয়েছে ব্যাপক কর্মসূচি। প্রবাসীদের নামে প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে তারা ব্রিটেনের একটি ফাইভ স্টার হোটেলে আয়োজন করেছে ইফতার মাহফিল ও সমাবেশ।

এ কর্মসূচিকে সফল করতে ব্যাপক তৎপরতা চালাচ্ছে দলটির ব্রিটেন শাখা।

এ প্রসঙ্গে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান শরিফ বাংলানিউজকে বলেন, “অলিম্পিকের অতিথি হয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী আসছেন, এটি জাতি হিসেবে আমাদের জন্য গর্বের। এ ধরনের একটি মর্যাদাপূর্ণ সফরকে প্রতিটি দেশপ্রেমিক নাগরিকেরই দেশের জন্যে গৌরব হিসেবে গ্রহণ করা উচিত। কিন্তু আমাদের বিরোধী দল তা না করে বিশ্বের অন্যান্য রাষ্ট্রনায়ক ও সাংবাদিকদের সামনে দেশকে বিব্রত করার কর্মসূচি দিয়েছে। এটি তাদের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্বেরই প্রমান দেয়।”

তিনি বলেন, “বিরোধী দলের গুটি কয়েক নেতাকর্মীর এ ধরনের কর্মকাণ্ডে প্রবাসীরা মোটেই উদ্বিগ্ন নয়। আর বিশ্ব রাষ্ট্রনায়কদের সামনে নিজ দেশকে যারা বিব্রত করতে চায়, তারা যে কতটুকু দেশপ্রেমিক তা বিদেশিরা নিশ্চয়ই অনুধাবণ করতে পারবে।”

বাংলাদেশ সময়: ২১১০ ঘণ্টা, জুলাই ২১, ২০১২

0 comments:

Post a comment

Popular Posts