Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha


সংস্কৃতিগত কারণেই গোলাম আযম বিশেষ সুবিধা পাচ্ছেন: দীপু মনি


সৈয়দ আনাস পাশা, লন্ডন করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
লন্ডন: বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, বয়স্কদের প্রতি দায়িত্ববোধের সংস্কৃতিগত কারণেই গ্রেফতারকৃত অভিযুক্ত শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযম বিশেষ সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন।
৯০ বছর বয়স্ক গোলাম আযম এখনও একদিন জেলের ভেতরে থাকেননি উল্লেখ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন,  ‘আদালতের নির্দেশেই তাকে হাসপাতালে থাকতে দেওয়া হচ্ছে।’
সম্প্রতি লন্ডন সফরকালে অনলাইন টিভি চ্যানেল বিদেশ টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে দীপু মনি এসব কথা বলেন।
পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, ‘ওয়ারক্রাইম ট্রাইব্যুনালের নির্দেশে গোলাম আযমকে গ্রেফতারের পর তার বয়স নিয়ে কেউ কেউ প্রশ্ন তোলার চেষ্টা করছেন। বলছেন, ৯০ বছর বয়স্ক একজন ব্যক্তিকে এভাবে কারাগারে নেওয়া কতটুকু যৌক্তিক। আমাদের প্রশ্ন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের সঙ্গে জড়িতদের যদি এখনও বিচারের কাঠগড়ায় তোলা যায়, তাহলে গোলাম আযমের বেলা কেন বয়সের প্রশ্ন।’
গ্রেফতারকৃত গোলাম আযমকে বিশেষ সুযোগ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে, এ বিষয়টি কি তিনি স্বীকার করেন। এমন এক প্রশ্নের উত্তরে দীপু মনি বলেন, ‘আমাদের বাঙালি সংস্কৃতিতে বয়স্কদের প্রতি দায়িত্ববোধের একটি রেওয়াজ আছে, সেই রেওয়াজের কারণেই হয়তো গোলাম আযমকে একটু বিশেষ সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে দেওয়া হচ্ছে।’

ওয়ারক্রাইম ট্রাইব্যুনাল নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন সংগঠনের উত্থাপিত প্রশ্নের বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা অনেক পরামর্শই বিবেচনায় নিয়েছি। সব পরামর্শ যে মানতে হবে তাতো নয়।’
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের ওয়ারক্রাইম ট্রাইব্যুনালের মান বিশ্বের অন্যান্য ওয়ারক্রাইম ট্রাইব্যুনালের চেয়ে কোন অংশেই কম নয়, বরং বেশি বলেই আমরা মনে করছি। আমাদের ট্রাইব্যুনালে অভিযুক্তদের আপিলের সুযোগ রয়েছে। সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা বজায় রেখেই কারযক্রম চালাচ্ছে ট্রাইব্যুনাল। এখানে গোপন কিছু নেই। ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম দেখতে যে কেউ পর্যবেক্ষক হিসেবে যেতে পারেন।’

অভিযুক্তদের বিদেশি আইনজীবীদের বাংলাদেশে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না, এমন এক অভিযোগের জবাবে পররাষ্ট্র মন্ত্রী জানতে চান, কোন আইনজীবী যখন অন্য একটি দেশের ইমিগ্রেশন আইন ভঙ্গ করেন,  তখন তার আর ওই দেশে যাওয়ার কোনো অধিকার আছে কি না?’

তিনি বলেন, ‘অভিযুক্তদের বিদেশি আইনজীবীরা আইনী সহায়তার চেয়ে যখন বিশ্বব্যাপী লবিইস্টের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন, যুদ্ধাপরাধ বিচারের বাংলোদেশের উদ্যোগকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করেন, তখন রাষ্ট্র হিসেবে তো আমরা উদ্বিগ্ন না হয়ে পারি না।’

পররাষ্ট্র মন্ত্রী জানান অভিযুক্তদের পক্ষের লবিইস্টদের কেউ কেউ নিজেদের পরিচয় গোপন করে বাংলাদেশে ঢুকতে চেয়েছেন, কোনো রাষ্ট্রের জন্যেই এটি গ্রহণযোগ্য হতে পারে না।’

পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, ‘ট্রাইব্যুনালের আইন নিয়ে আমরা জাতিসংঘের মতামত নিয়েছি, এ পর্যন্ত প্রায় ১৮টি সংশোধনী গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ, এরপরও কেন এত সমালোচনা।
বাংলাদেশ সময়: ১০২৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০১২

0 comments:

Post a comment

Popular Posts