Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

‘হ্যারি পটার’-এর বাঙালি অভিনেত্রীর ভাইয়ের ৬ মাসের জেল

লন্ডন: শেষ পর্যন্ত শাস্তির হাত থেকে ভাইকে বাঁচাতে পারেননি সাম্প্রতিক সময়ের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ‘হ্যারি পটার’-এর বাঙালি অভিনেত্রী আফসান আজাদ। পারিবারিক সহিংস আচরণের জন্যে ভাই আশরাফ আজাদকে এখন ৬ মাসের জেল ভোগ করতে হবে।

এক হিন্দু ছেলের সঙ্গে সম্পর্কের অভিযোগে হ্যারি পটার অভিনেত্রীকে মারধর ও হত্যার হুমকি দেওয়ায় ভাই আশরাফকে এ দণ্ড ভোগ করতে হচ্ছে। শুক্রবার ব্রিটেনের ম্যানচেস্টার ক্রাউন কোর্টের বিচারক রজার টমাস কিউসি আশরাফকে ওই দণ্ড দেন।

গত ২০ ডিসেম্বর শুনানি শেষে আফসান আজাদকে মারধর ও হত্যার হুমকি দেওয়ায় আশরাফকে দোষী সাব্যস্থ করেন বিচারক। ১ মাস পর শুক্রবার উপরোক্ত অপরাধের জন্যে ৬ মাসের জেল দিলেন বিচারক।

হ্যারি পটার অভিনেত্রী আফসান শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত ভাইকে শাস্তির হাত থেকে বাঁচানোর চেষ্টা করলেও তা সম্ভব হয়নি। আদালত কার্যক্রমের শুরুতেই আফসান তার বড় ভাইকে ক্ষমা করে দেওয়ার জন্যে আদালতের কাছে অনুরোধ জানান। কিন্তু বিচারক রজার টমাস তা বিবেচনা না করে তাকে ৬ মাসের জন্যে কারাদণ্ড দেন।

অভিযুক্ত আশরাফের উদ্দেশ্যে বিচারক বলেন, ‘হিতাহিত জ্ঞানশুন্য হয়ে শারীরিক ও মানসিক আক্রমণ এবং হুমকি মার অযোগ্য অপরাধ। এই ঘটনা অবশ্যই তোমার বোনের জন্যে একটি ভয়ানক অভিজ্ঞতা যা দীর্ঘ তিন ঘণ্টা তাকে সহ্য করতে হয়েছে।

বিচারক বলেন, তুমি যে অপরাধ করেছো তার জন্যে এ শাস্তিই তোমার জন্যে নির্ধারিত ছিল। এই শাস্তির মাধ্যমে তোমার মত মানুষের প্রতি এই বার্তাই দেওয়া হলো যে, পারিবারিক সহিংসতা সভ্য সমাজ কোনোভাবেই বরদাশত করবে না’।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২১ মে আফসান তার বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলার সময় ভাই আশরাফ আজাদ শুনে ফেলেন। আর এতেই বাধে যত বিপত্তি। একটি হিন্দু ছেলের সঙ্গে বোনের সম্পর্কের কথা শুনে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন আশরাফ। তিনি রাগান্বিত হয়ে বোন আফসানকে তিরস্কার করতে থাকেন। এক পর্যায়ে আফসানের গায়েও হাত তোলেন আশরাফ। আশরাফ এ সময় বাবা আব্দুল আজাদকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে বলেন, ‘তোমার মেয়ে নষ্ট হয়ে গেছে, একটি হিন্দু ছেলের সঙ্গে সে সম্পর্ক করেছে’। বাবা ও ভাইয়ের চিৎকার চেঁচামেচিতে ভয় পেয়ে যান আফসান এবং দৌড়ে ঘর থেকে বেড়িয়ে গিয়ে স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে নিরাপত্তার আবেদন করেন।

পুলিশের কাছে নিরাপত্তার আবেদনের সময় আফসান উল্লেখ করেন, ভাইয়ের চিৎকার চেচামেচিতে বাবা আব্দুল আজাদও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন এবং বলেন প্রয়োজনে মেয়েকে মেরে ফেলবো, তবুও হিন্দু ছেলের হাতে তুলে দোবো না। কিন্তু তাঁর নিরাপত্তার আবেদন হত্যা হুমকির অভিযোগ হিসেবে আদালতে উপস্থাপন হওয়ায় ভয় পেয়ে যান হ্যারি পটার অভিনেত্রী। তিনি বাবা ও ভাইয়ের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ আনতে অস্বীকার করেন।
পুলিশের কাছে দেওয়া তাঁর জবানবন্দি অস্বীকার করে আফসান আদালতকে বলেন, আমি আমার বাবা ও ভাইকে প্রচণ্ডভাবে ভালোবাসি। আমি তাদের বিরুদ্ধে হত্যার হুমকির অভিযোগ আনিনি। তিনি বলেন, আমি নিজে ভালো বাংলা বলতে পারি না এবং বুঝিও না। একটি মুসলমান পরিবারের ধর্মীয় রীতিনীতি ও ঐতিহ্য টিকিয়ে রাখতে রাগের মাথায় বাবা ও ভাই আমাকে শাসন করেছেন।

হ্যারি পটার অভিনেত্রী বলেন, যেহেতু বাংলা বুঝি না, সেহেতু বাবার ‘হিন্দু ছেলের সঙ্গে যেতে হলে আমার লাশের উপর দিয়ে যেতে হবে’ এই উক্তিকে হত্যার হুমকি মনে করে এবং বাংলা উচ্চারণে তাদের রাগান্বিত চিৎকার চেঁচামেচিতে ভয় পেয়ে আমি পুলিশের কাছে গিয়ে নিরাপত্তা চেয়েছি।

উল্লেখ্য, আফসান আজাদ হ্যারি পটার-৪ চলচ্চিত্রে নায়ক হ্যারি পটারের সহপাঠি পাদমা পাতিলের চরিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। হ্যারি পটারে অভিনয় করায় তিনি ব্রিটেনের তরুণ প্রজন্মের কাছে অনেকটা সেলিব্রিটি হিসেবে আভির্ভূত হন।

বাঙালি বংশোদ্ভুত অভিনেত্রী আফসান আজাদের বাবা-মা বাংলাদেশের সিলেটের বাসিন্দা। ২২ বছর বয়সী আফসান আজাদ ২০০৫ সালে প্রথম ‘হ্যারি পটার অ্যান্ড দ্য গবলেট অব ফায়ার’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পান। ঐ সময়কে তিনি তার জীবনের সবচেয়ে বড় অভিজ্ঞতা সঞ্চয়ের সময় হিসেবে অভিহিত করে থাকেন।


বাংলাদেশ সময়: ০৮৪০ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০১১
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts