Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

রাজ্জাকের চিকিৎসার জন্য দরকার ২ কোটি ৭১ লাখ টাকা

লন্ডন: জরুরি ভিত্তিতে আব্দুর রাজ্জাকের লিভার প্রতিস্থাপনের জন্যে প্রায় ২ কোটি ৭১ লাখ টাকা প্রয়োজন। তার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র নাম প্রকাশ না করার স্বার্থে বাংলানিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন। 

সূত্র জানায়, রাজ্জাকের লিভার প্রতিস্থাপন করাতে হলে তাকে লন্ডন ব্রিজ হাসপাতাল থেকে কিংস কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করতে হবে বলে বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিয়েছেন। আর এই চিকিৎসা এখনই শুরু করতে হলে মোট ২ লাখ ৩০ হাজার পাউন্ড প্রয়োজন, যার গ্যারান্টি দিতে হবে আগেই। 

সূত্র আরও জানায়, তার পরিবারের পক্ষে এত টাকা জোগাড় করা সম্ভব নয়। তাই লিভার প্রাপ্তির আশায় দাতাদের কাছে আবেদন ছাড়াও সাবেক এই মন্ত্রীর দ্রুত চিকিৎসা শুরুর জন্য বিভিন্নভাবে পরিবারের সদস্যরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্ক থেকে দেশে ফেরার পর রাজ্জাকের ছেলে তার সঙ্গে দেখা করে বাবার সর্বশেষ অবস্থা জানাবেন। 


সূত্র জানায়, আগ থেকেই লিভার সমস্যায় ভুগছিলেন বঙ্গবন্ধুর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এই আওয়ামী লীগ নেতা। ২/৩ সপ্তাহ আগে শারিরীক চেকআপের জন্যে তিনি লন্ডন আসেন। ওঠেন তার শ্যালকের বাসায়। পরীক্ষায় ধরা পড়ে তার রক্তে হিমগ্লোবিন মারাত্মকভাবে কমে গেছে। জরুরিভিত্তিতে তার চিকিৎসা শুরু হয়। মঙ্গলবার হঠাৎ অবস্থার অবণতি হয় সাবেক এই মন্ত্রীর। তাকে ভর্তি করা লন্ডন ব্রিজ হাসপাতালে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের জননন্দিত এই রাজনীতিক আইসিইউতেই জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন। 

গতকাল হাসপাতালে রাজ্জাকের পাশে দীর্ঘ ৪ ঘণ্টা অতিবাহিত করেন আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা ম-লীর আরেক সদস্য জনাব আমির হোসেন আমু। বাংলানিউজের পক্ষ থেকে আমুর কাছে আব্দুর রাজ্জাকের সর্বশেষ অবস্থা জানতে চাইলে তিনি জানান, যত দ্রুত সম্ভব তার লিভার প্রতিস্থাপন করতে হবে। এ ব্যাপারে চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কোন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে আমু বলেন, ‘আমিতো এখন লন্ডনে। দেশে দলীয়ভাবে কি চিন্তা হচ্ছে তা বলতে পারবো না।’
 
এদিকে, সংস্কারবাদী হিসেবে চিহ্নিত হওয়ায় রাজ্জাকের জীবন-মৃত্যুর এই সন্ধিক্ষণের সময়ও মানবিকতার চেয়ে রাজনীতির হিসেব নিকেশই বেশি করে কষা হচ্ছে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে। 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন আওয়ামী লীগ নেতা বাংলানিউজকে বলেন, ‘রাজনীতিতে সংষ্কারের প্রস্তাব দেওয়ায় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের এই শীর্ষ সংগঠকের সারা জীবনের অর্জন যেন আজ নিঃশেষ হয়ে গেছে। দলীয় হাইকমান্ডের আশির্বাদ বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় বঙ্গবন্ধুর এই ঘনিষ্ট শীর্ষ সহযোগীর এই চরম দুঃসময়েও কেউ কাছে ভিড়তে সাহস পাচ্ছেন না। 

সূত্র জানায় লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে গ্যারান্টি দিলেই কিংস কলেজ হাসপাতালে রাজ্জাকের চিকিৎসা শুরু হতে পারে। কিন্তু হাইকমিশনও এ বিষয়ে নীরব। 

বাংলানিউজের পক্ষ থেকে হাইকমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে হাইকমিশনের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘জনাব রাজ্জাকের চিকিৎসার খোঁজ খবরের বিষয়ে হাইকমিশন কতটুকু করছে, তার কিছু আমি জানি না। তবে জনাব রাজ্জাকের স্ত্রী গতকাল হাইকমিশনারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২২০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১১
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts