Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

লন্ডনে রাজ্জাকের লিভার প্রতিস্থাপন এ মাসেই

লন্ডন: লন্ডনে চিকিৎসাধীন মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আব্দুর রাজ্জাককে লন্ডন ব্রিজ হাসপাতাল থেকে কিংস কলেজ হাসপাতালে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

তবে কিংস কলেজ হাসপাতালে রাখা হলেও সাবেক এ মন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা বর্তমানে আগের চেয়ে অনেক ভালো বলে জানা গেছে। কেবিন পাওয়া মাত্রই তাকে আইসিইউ থেকে সরিয়ে নেওয়া হবে। 

আব্দুর রাজ্জাকের শ্যালক ফুয়াদ লতিফ বাংলানিউজকে জানান, আগের চেয়ে অনেক ভালো আছেন তিনি। এখন স্বাভাবিকভাবে সবার সঙ্গে কথা বার্তা বলছেন। দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতির খোঁজ খবরও নিচ্ছেন ঘনিষ্ঠদের কাছ থেকে। 

লতিফ জানান, রাজ্জাকের লিভার প্রতিস্থাপনের জন্য নির্ধারিত এপয়েন্টমেন্টের অপেক্ষায় আছেন তারা। অক্টোবরের মধ্যেই লিভার প্রতিস্থাপনের জন্যে অস্ত্রোপচার সম্ভব হবে বলে ডাক্তাররাও আশ্বাস দিয়েছেন রাজ্জাক পরিবারকে। 

এরই মধ্যে আব্দুর রাজ্জাককে লিভার দানে অনেকেই আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন ফুয়াদ। 

রাজ্জাকের এক ভাইয়ের ছেলে চাচাকে লিভার দানের জন্য লন্ডন আসছেন বলে জানান ফুয়াদ।

রক্তের গ্র“পসহ যাবতীয় তথ্যসম্বলিত কাগজপত্র হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে জানিয়ে ফুয়াদ বাংলানিউজকে বলেন, ডাক্তাররা যার লিভার উপযুক্ত মনে করবেন তার লিভারই প্রতিস্থাপন করা হবে।

এদিকে, রাজ্জাক পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র বাংলানিউজকে জানিয়েছে, আব্দুর রাজ্জাকের চিকিৎসার খরচ যোগানোর আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

ছেলে নাহিম রাজ্জাক সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে রাজ্জাকের সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীকে জানান।

এ সময় সব কিছু শুনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের এ প্রবীণ নেতার চিকিৎসার ব্যয় মেটানোর যথাসাধ্য চেষ্টা করবেন বলে নাহিমকে আশ্বাস দেন।

 শুধু প্রধানমন্ত্রী নন, আব্দুর রাজ্জাকের সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছেন তার সহকর্মী ও সুহৃদরাও। 

আব্দুর রাজ্জাকের দীর্ঘদিনের সহকর্মী আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদের চেষ্টায় একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চিকিৎসার জন্যে আব্দুর রাজ্জাককে সহজ শর্তে ঋণ দিয়েছে বলে জানা গেছে।

আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিলের মালিকানাধীন বাংলাদেশের মার্কেন্টাইল ব্যাংক এবং ন্যাশনাল ব্যাংকও যথাক্রমে দেড় কোটি ও এক কোটি টাকা করে ঋণ দিয়েছে আব্দুর রাজ্জাককে। 

এছাড়া আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের আরেক সদস্য আমির হোসেন আমুও নিয়মিত খোঁজ খবর রাখছেন রাজ্জাকের। 

সর্বশেষ হিসেব অনুযায়ী রাজ্জাকের চিকিৎসার জন্যে মোট ব্যয় হবে সাড়ে তিন কোটি টাকারও বেশি। 

অস্ত্রোপচারের শুরুতেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে পরিশোধ করতে হবে ২ কোটি ৭১ লাখ টাকা। সব মিলিয়ে রাজ্জাকের দেহে লিভার প্রতিস্থাপনের বিষয়ে আর কোনও অনিশ্চয়তা নেই বলে জানা গেছে। 

রাজ্জাক পরিবারের পক্ষ থেকে আশা করা হচ্ছে আগামী ২০ অক্টোবরের মধ্যেই হয়তো সাবেক এই মন্ত্রীর দেহে লিভার প্রতিস্থাপনের কাজ সম্পন্ন করা হতে পারে। 

রাজ্জাকের শ্যালক ফুয়াদ লতিফ পরিবারের পক্ষ থেকে তার ভগ্নিপতির জন্য বাংলানিউজের মাধ্যমে সবার কাছে দোয়া কামনা করেছেন।

তিনি বলেন, সবার দোয়াতেই জননেতা রাজ্জাক আবার জনতার মাঝে ফিরে যাবেন। পরিবারের সদস্য হিসেবে এটিই আশা করছি আমরা।’

এ সময় তিনি অসুস্থ আব্দুর রাজ্জাকের চিকিৎসা বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

বাংলাদেশ সময়: ০২৩৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৫, ২০১১
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts