Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

‘শফি মাদ্রাসা বোর্ডের চেয়ারম্যান থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন’

সৈয়দ আনাস পাশা, লন্ডন করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লন্ডন কপথর্ণ তারা হোটেল থেকে:  প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রশাসন বিষয়ক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেছেন, হেফাজত নেতা আল্লামা আহমেদ শফি মহিলাদের সম্পর্কে যে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য রেখেছেন, তা বাংলাদেশের চেতনাবিরোধী। দেশ ও দেশের চেতনাবিরোধী বক্তব্য রাখার পর কেউ কোনো দায়িত্বশীল পদে থাকতে পারেন না।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, মহিলাদের সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য ও দেশের উন্নয়নে নারীদের অংশগ্রহণের বিরুদ্ধে মন্তব্য করে কওমী মাদ্রাসা বোর্ডের চেয়ারম্যান থাকার যোগ্যতা হারিয়েছেন শফি।

বৃহস্পতিবার পশ্চিম লন্ডনের কপথর্ণ তারা হোটেলে বাংলানিউজের সাথে এক একান্ত সাক্ষাৎকারে জনাব ইমাম এই মন্তব্য করেন।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, বাংলাদেশের মক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দেশটির সার্বিক উন্নয়নের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে শফি জাতির প্রতি ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন, তাঁর এই ধৃষ্টতা প্রশ্রয় দেয়া যায় না।

বিএনপি-জামাতের মদদেই হেফাজত নাম নিয়ে মৌলবাদীদের সাম্প্রতিক উত্থান ঘটেছে মন্তব্য করে এইচ টি ইমাম বলেন, ২০০১ সালে এই জোটটি ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশ একটি জঙ্গি রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি পেয়েছিল। জেএমবি, হরকাতুল জেহাদের মতো জঙ্গি সংগঠনগুলো তৎপরতা শুরু করেছিল বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের মদদ নিয়েই।

তিনি বলেন, বর্তমান মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর জঙ্গি তৎপরতা দমন করে বাংলাদেশের কপাল থেকে ‘জঙ্গি রাষ্ট্র’ এর কলঙ্ক তিলকটি সরাতে সক্ষম হয়। ইমাম বলেন, ২০০১ মেয়াদে জঙ্গি উত্থানে সহযোগিতার সেই ধারা নতুন করে আবারও শুরু করেছে জামায়াত-বিএনপি। হেফাজত নামের মৌলবাদী গোষ্ঠির সাম্প্রতিক উত্থান তাঁরই প্রমাণ।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে ধর্মের ব্যবহার যতদিন বন্ধ করা না যাবে, ততদিন রাজনীতিতেও স্থিতিশীলতা আসবে না। প্রধান বিরোধী দলের সহযোগিতা ছাড়া রাজনীতিতে ধর্মের ব্যবহার বন্ধ করা একটি কঠিন কাজ---এ মন্তব্য করে ইমাম বলেন, এরপরও আমরা আশাবাদী আগামী নির্বাচনে এটি করতে পারবো।

 ‘বিএনপি,জামায়াত-হেফাজতের প্রতিনিধিত্ব করে না’ --বুধবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুলের এমন মন্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, বিএনপিকে কথা ও কাজের মিল প্রমাণ করতে হবে।

তিনি বলেন, বিদেশে এসে বলবেন জামায়াত-হেফাজতের সাথে সম্পর্ক নেই, আর দেশে গিয়ে তাদের সহিংস আন্দোলনে পেছন থেকে সমর্থন দেবেন এটি তো স্ববিরোধী। এই স্ববিবিরোধিতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

জনাব ইমাম বলেন, বিএনপি গণতন্ত্রের চর্চার কথা সভা সেমিনারে জোর গলায় বলবে, আর রাস্তায় সহিংসতা সৃষ্টি করে পুলিশহত্যায় শিবির কর্মীদের সহযোগিতা করবে এটি তো হয় না।

‘সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ভরাডুবির পর আপনারা শংকিত কি না’-- এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, এই ফলাফল আমাদের অনেকভাবেই বিশ্লেষণ করতে হচ্ছে, কিন্তু আমরা শঙ্কিত নই।

তিনি বলেন, সিটি নির্বাচনেও ধর্মের ব্যবহার হয়েছে। আর ধর্ম ব্যবহার করে বিভ্রান্তি সৃষ্টির কারণেই গাজীপুরে বিএনপি’র একজন বিতর্কিত প্রার্থীর কাছে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় প্রার্থী আজমত উল্লাকে হারতে হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা অভিযোগ করেন, গাজীপুরের নির্বাচনে ভয় দেখিয়ে হিন্দু ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে দেয়া হয়নি।

বর্তমান সরকারের মেয়াদে দণ্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যকর করা সম্ভব কি না, এমন এক প্রশ্নের জবাবে এইচ টি ইমাম বলেন, আমরাতো আশা করছি সরকারের এই মেয়াদেই দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েকজনের রায় কার্যকর করা সম্ভব হবে।

‘বুধবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সেমিনার থেকে কি নিয়ে দেশে  যাচ্ছেন?’—এ প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, গত ডিসেম্বরে আমরা আরেকবার এসেছিলাম একটি সেমিনারে। সেই সেমিনারে ব্রিটিশ রাজনীতিকরা বলেছিলেন বিরোধী দলের তত্ত্বাবধায়ক সরকার দাবির ইস্যু বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়, এই বিষয় বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোকেই আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করতে হবে। এবারের সেমিনারেও ঠিক একই কথা বেরিয়ে এসেছে ব্রিটিশ রাজনীতিকদের মুখ থেকে। সুতরাং বিএনপি’কে বুঝতে হবে বিদেশিদের কাছে ধর্ণা দিয়ে ক্ষমতায় যাওয়া যাবে না, দেশের অভ্যন্তরীণ নির্বাচনী আইন মেনে নিয়ে নির্বাচন করেই ক্ষমতায় যেতে হবে।

সেমিনারে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতির বিরুদ্ধে ব্যারোনেস পলা উদ্দিনের সুস্পষ্ট অবস্থানের কথা উল্লেখ করে এইচ টি ইমাম বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সিস্টেম সম্পর্কে বিদেশি রাজনীতিকদের এই মনোভাব দেখার পরও বিএনপি যদি তত্ত্বাবধায়ক ইস্যু নিয়েই রাজপথের সহিংস রাজনীতিতে থাকতে চায়, তাহলে তা হবে দুর্ভাগ্যজনক।

বাংলাদেশ সময়: ০০৩৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০১৩

0 comments:

Post a comment

Popular Posts