Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha


উই আর সার্চিং ফর আওয়ার রুটস


সৈয়দ আনাস পাশা, লন্ডন করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
লন্ডন: বর্তমানে বাংলাদেশে জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল এটিএন বাংলায় প্রচারিত রিয়েলিটি শো ‘ফরগটেন রুটস’ এর তারকা লন্ডনপ্রবাসী নিশাত মনসুর বলেছে, ফরগটেন রুটস এর মাধ্যমে তাঁরা তাদের নিজ শেকড়ের সন্ধান করছে। তাঁর স্পষ্ট উচ্চারণ ‘উই আর সার্চিং ফর আওয়ার রুটস’। সম্প্রতি এটিএন ইউরোপে ফরগটেন রুটস প্রচারণার ঘোষণা উপলক্ষে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ শেষে নিশাত বাংলানিউজের কাছে উপরোক্ত মন্তব্য করে।

চলতি মাস থেকে বাংলাদেশ ও আমেরিকায় এটিএন বাংলায় প্রচার শুরু হওয়া ফরগটেন রুটস এ পারফর্ম এর অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে নিশাত বাংলানিউজকে বলে, পারফর্ম করাটা যথেষ্ট কষ্টসাধ্য হলেও বাংলার গ্রামীণ সংস্কৃতি যে কতটুকু উপভোগ করেছি তা ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়। নিশাতের মতে বাঙালির মুক্তিযুদ্ধ নতুন প্রজন্মের জন্যে পূর্ব প্রজন্মের রেখে যাওয়া সর্বশ্রেষ্ঠ উপহার। এই উপহার পাওয়ার ভাগ্য সবার হয় না। মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্মের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে নিশাত বাংলানিউজকে বলেন অবাঙালি বন্ধুবান্ধবদের কাছে মাথা উঁচু করে গল্প করার মত এমন একটি ইতিহাস তাঁরা আমাদের জন্যে রেখে গেছেন, যে ইতিহাস পৃথিবীর খুব কম জাতিরই আছে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে ব্যাপক অনিসন্ধিৎসু ফরগটেন রুটস তারকা নিশাত বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির প্রতিও তাঁর দরদের কথা বাংলানিউজকে বলতে ভোলে নি। মাতৃভাষা রক্ষায় বাঙালির রক্ত দেয়া, ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি এসব বিষয়ই নিশাতকে আলোড়িত করে বলে সে জানালো বাংলানিউজকে। একজন সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে ব্যাপক পরিচিত এই কিশোরের বাংলা ও ইংরেজি উভয় গানের ভুবনেই রয়েছে ব্যাপক পদচারণা। লন্ডনে আয়োজিত প্রতি বছরের বৈশাখী মেলায় নিশাতের গান লাখো মানুষকে আলোড়িত করে। বাংলা গানের মধ্যে রবীন্দ্র সংগীত ও নজরুল গীতির প্রতি তাঁর আলাদা টান, এমনটাই জানালো সে বাংলানিউজকে। ‘ফরগটেন রুটস’ রিয়েলিটি শো তে বাঙালির গ্রামীণ সংস্কৃতিকে কে বেশি হৃদয়ে ধারণ করতে পেরেছেন, দর্শকরা ভোট দিয়ে
এটি ঠিক করবেন।

সেরা পারফর্মার হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার জন্যে দর্শকদের ভোট চাও কি না-- বাংলানিউজের এ-প্রশ্নের জবাবে নিশাত বলে, ‘আমি আমার শেকড়ের সন্ধান করতেই এই শোতে অংশ নিয়েছি, পূর্ব পুরুষের শেকড় সংষ্কৃতির সাথে কতটুকু একাত্ম হতে
পেরেছি তা দর্শকরাই ভালো বলতে পারবেন। আমি অবশ্যই তাদের সমর্থন চাই। সমর্থন চাই এই কারণে যে, শেকড় সন্ধানী স্পৃহা যেন আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্যেও রেখে যেতে পারি। বাংলাদেশে ফরগটেন রুটস প্রচারিত হয় প্রতি শুক্রবার রাত ৮টা থেকে ৯টা পরযন্ত। তাঁকে বিজয়ী দেখতে চাইলে NIS লিখে 2010 নাম্বারে যেকোন নাম্বার থেকে যত খুশি তত SMS করার জন্যে অনুরোধ জানিয়েছে নিশাত। উল্লেখ্য, জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল এটিএন বাংলায় সম্প্রতি প্রচার শুরু হওয়া রিয়েলিটি শো ‘ফরগটেন রুটস’ দেশে বিদেশে ব্যাপক সাড়াজাগিয়েছে। চলতি মাস থেকে শুরু হওয়া এই শো টি বাংলাদেশে প্রতি
শুক্রবার রাত ৮টা থেকে ৯টা পরযন্ত এটিএন বাংলায় প্রচারিত হচ্ছে। প্রবাসে জন্ম নেয়া বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত তরুণ তরুণীদের নিজ শেকড়ের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়ার ব্যতিক্রমী একটি পরিকল্পনা থেকে
তৈরি করা এই রিয়েলিটি শো নিয়ে ব্রিটেনের বাঙালি কমিউনিটিতে পড়েছে ব্যাপক সাড়া। বাংলাদেশের বাইরে জন্ম নেওয়া ও বেড়ে ওঠা ১০জন প্রতিযোগীর সিলেটের লালাখাল গ্রামে দীর্ঘ ১৬ দিনের চ্যালেঞ্জিং
কাজের মাধ্যমে তৈরি করা এটিএন এর সাড়া জাগানো রিয়েলিটি শো ‘ফরগটেন রুটস’ এ বাঙালির গ্রামীণ সংস্কৃতির সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হয় দেশের বাইরে জন্ম নেওয়া ও বেড়ে ওঠা বাঙালির মেধাবী তরুণ প্রজন্মের এই ১০ প্রতিনিধিকে। যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, কানাডা এবং স্পেন থেকে অংশগ্রহণকারী ১০ সদস্যের এই প্রতিনিধিরা হলো:
নিশাত, প্রিয়াংকা, মিষ্টি, মোনা, আল আমিন ও আফসার (ব্রিটেন), মঞ্জুর ও জাকির (যুক্তরাষ্ট্র), জিনিয়া (স্পেন) ও তাসলিমা (কানাডা)।
গ্রাম থেকে ধান কাটা, ধান মাড়াই, গোবর দিয়ে ঘুটে তৈরি, নৌকা চালানো, রান্না করা, পিঠা বানানো, মাটি কেটে কাঁচা মাটির ঘর তৈরি করা, মাছ ধরা এবং মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়ার অভিনয়সহ গ্রামীণ বিভিন্ন খেলাধুলায় অংশ নেয় এই ১০ প্রতিযোগী। শুধু গ্রামীণ সংস্কৃতি নয়, বাঙালির সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন মহান মুক্তিযুদ্ধও সিলেটের লালাখালের ১৬ দিনের এই চ্যালেঞ্জিং কাজে হৃদয়ে ধারণ করে নিয়ে আসে অনাবাসী বাঙালির এই নতুন প্রজন্ম। মূল শেকড়ের সাথে পরিচয়হীন এই প্রতিযোগীদের প্রতিযোগিতার প্রতিটি পর্বে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন গ্রামীণ জনগোষ্ঠি থেকে নির্বাচিত বিষয়ভিত্তিক বিচারকরা।
আগামী রোববার, ২৫ শে মার্চ থেকে এটিএন ইউরোপেও প্রচার শুরু হচ্ছে ‘ফরগটেন রুটস’-এর। এটিএন ইউরোপের পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রিয়েলিটি শো ‘ফরগটেন রুটস’ প্রচারের ঘোষণা দিয়ে বলা হয়, প্রবাসে জন্ম নেওয়া ও বেড়ে উঠা বাঙালির মেধাবী নতুন প্রজন্মকে নিজ শেকড়ের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়ার নিরন্তর চেষ্টা করে যাবে এটিএন বাংলা। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় ২৬ পর্বে বিভক্ত এই রিয়েলিটি শো তে দর্শকরা ভোট দিয়ে সেরা পারফরমার নির্বাচিত করতে পারবেন। প্রতিটি পর্ব থেকে প্রাপ্ত নাম্বারের ভিত্তিতে গ্রান্ড গ্যালা শো এর জন্যে প্রতিযোগী নির্বাচন করা হবে। ফরগটেন রুটস এর বিজয়ী
পুরস্কার হিসেবে পাবে ১০,০০০ হাজার পাউন্ড।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০৩ ঘণ্টা, ২২ মার্চ, ২০১২

0 comments:

Post a comment

Popular Posts