Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

২৫শে মার্চ আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস ঘোষণার আহবান


লন্ডন করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লন্ডন: ১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চ কালোরাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর অতর্কিত আক্রমণে নিহত শহীদদের স্মরণে লন্ডন শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন ব্রিটেন প্রবাসীরা।

সোমবার রাত ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে শহীদদের প্রতি এ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তারা।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির আয়োজনে ও আইসিটি সাপোর্ট ফোরামের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এই শ্রদ্ধা নিবেদন অনুষ্ঠানে মাইনাস ডিগ্রির তীব্র ঠাণ্ডা উপেক্ষা করে বিপুল সংখ্যক মানুষ সমবেত হন শহীদ মিনারে।

এ সময় সবার হাতে জ্বলন্ত মোমবাতি থাকলেও তীব্র বাতাসের কারণে সেগুলো জ্বালিয়ে রাখা সম্ভব হয়নি।

রাত ১১টা ৫৯ মিনিট থেকে ১২টা পর্যন্ত এক মিনিট নিরবে দাঁড়িয়ে  শহীদদের স্মরণ করা হয়। নিরবতার আগে পুরো একঘণ্টা যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে চলে গগনবিদারী স্লোগান। শহীদ মিনারের পাদদেশে অনুষ্ঠিত হয় সমাবেশ। এতে সভাপতিত্ব করেন ব্রিটেনে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রবীণ নেতা সুলতান শরীফ।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর চেয়ারম্যান আলহাজ শামসুদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফারুক, সিপিবির প্রবীণ নেতা ডা. রফিকুল হাসান খান জিন্না, জাসদ সহ-সভাপতি মুজিবুল হক মনি, আওয়ামী লীগ নেতা শাহাব উদ্দিন চঞ্চল, সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন বেলাল, মতিয়ার চৌধুরী।

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন- ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় নেতা আনসার আহমেদ উল্লা, সহ-সাধারণ সম্পাদক জামাল খান, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম নেতা মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলর খলিল কাজী, আইসিএসএফের সৈকত আচার্য, মুক্তিযোদ্ধা শাহ এনাম, মহিলা আওয়ামী লীগ নেতা মেহের নিগার চৌধুরী, সংস্কৃতি কর্মী মাহফুজা তালুকদার, ছাত্রলীগ নেতা সরোয়ার কবির, বেতার বাংলা শ্রোতা ফোরামের আফসার খান সাদেক প্রমুখ।

অনুষ্ঠান পরিচালনা ও আন্দোলন সফল না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকার শপথ বাক্য পাঠ করান ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আনাস পাশা।

সমাবেশের ঘোষণায় ২৫ মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে পালন করার জন্য বিশ্ববাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলা হয়, পৃথিবীর ইতিহাসের নৃশংসতম গণহত্যার শুরু হয়েছিল ২৫ মার্চের কালোরাতের হত্যাযজ্ঞের মাধ্যমে।

সুতরাং এ দিনটিকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে ঘোষণা করা বিশ্ব সম্প্রদায়ের নৈতিক দায়িত্ব বলেই মনে করে বাংলাদেশের জনগণ। একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি আদায়ে ব্রিটেনসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমর্থন কামনা করে ব্রিটেনে বসবাসরত বুদ্ধিজীবী হত্যার মূলনায়ককে বাংলাদেশের হাতে তুলে দেওয়ার আহবান জানানো হয় ব্রিটিশ সরকারের প্রতি।

শহীদ মিনারের সমাবেশ ছাড়াও স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে স্থানীয় বাংলাদেশ হাইকমিশন ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগসহ অন্যান্য সংগঠন সপ্তাহব্যাপী নানা কর্মসূচির আয়োজন করে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৩ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০১৩
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts