Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

রায়ে ক্ষুব্ধ লন্ডন প্রবাসীরা


সৈয়দ আনাস পাশা, লন্ডন করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
রায়ে ক্ষুব্ধ লন্ডন প্রবাসীরা
লন্ডন: যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা আব্দুল কাদের মোল্লার মৃত্যুদণ্ড না হওয়ায় হতাশা হয়েছেন ব্রিটেনে প্রবাসী বাংলাদেশীরা। কাদের মোল্লার মৃত্যুদণ্ড না দেওয়াকে কোনোভাবে মেনে নিতে পারছেন না তারা। মঙ্গলবার বিকেলে পূর্ব লন্ডনে একটি সমাবেশ আহবান করেছে ৩৩টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত যুদ্ধাপরাধ বিচারের পক্ষের মোর্চা।

বাংলানিউজকে লন্ডনপ্রবাসী আবদুল গাফফার চৌধুরী বলেন, “কাদের মোল্লার ফাঁসি না হওয়ায় দেশে-বিদেশে যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে তাতে আবারও প্রমাণ হয়েছে সারা দেশ যুদ্ধাপরাধীদের শুধু বিচার নয়, কঠোর শাস্তির পক্ষে।”

রায়কে সামনে রেখে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হরতালসহ বিভিন্ন কর্মসূচি দেয় জামায়াত। সরকারকে জামায়াতকে ভয় পেয়ে পিছু হটছে বলে লন্ডনপ্রবাসীদের মনে প্রশ্ন উঠেছে।

তিনি আবদুল গাফফার বলেন, “আমাদের বুঝতে হবে, জনমতের চাপে আদালত প্রভাবিত হতে পারে না। আদালতকে তার নিজস্ব প্রক্রিয়ায় চলতে দিতে হবে। একটি রায় হয়েছে, এরপর আপিলের ব্যবস্থা আছে। এই মূহূর্তে সরকারের কাছে আমাদের আপিলের দাবি জানাতে হবে। আমিও এই আপিলের দাবি জানাচ্ছি। কারণ কাদের মোল্লা যে অপরাধ করেছে, তার শাস্তি একমাত্র মৃত্যুদণ্ডই হতে পারে। আমাদের অপেক্ষা করা ও দেখা উচিত বিচারের সর্বশেষ ধাপ পরযন্ত কি হয়।”

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধের প্রবীণ প্রবাসী সংগঠক সুলতান শরীফও সন্তুষ্ট নন কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন কারাদন্ডে। বাংলানিউজকে তিনি বলেন, “আদালতের প্রতি সম্মান দেখিয়েই আমি বলতে চাই কোনো ঘাটতির কারণে ট্র্রাইব্যুনাল কাদের মোল্লার মত ঘৃন্য যুদ্ধাপরাধীকে মৃত্যুদণ্ড দিতে পারলেন না। প্রসিকিউশন টিমকে তা খতিয়ে দেখতে হবে এবং এই ঘাটতিগুলো পুরণ করে অবিলম্বে আপিলে যেতে হবে রাষ্ট্রকে।”

বিশিষ্ট কবি শামীম আজাদ বাংলানিউজকে বলেন, “আপিল আপিল আপিল চাই/ আপিল করে লড়বো ভাই।”

এই লাইনটি তিনি তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসেও দিয়েছেন। তার মতে, “কাদের মোল্লাদের অপরাধের শাস্তি একবারের মৃত্যুদণ্ডই যেখানে যথেষ্ট নয়, সেখানে মাত্র যাবজ্জীবন? বাংলাদেশ নিশ্চয়ই গর্জে উঠবে।”

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির নেতা আনসার আহমেদ উল্লার বলেন, “একই অপরাধ করে বাচ্চু রাজাকার যদি মৃত্যুদণ্ডে দন্ডিত হয়, তাহলে কাদের মোল্লা কেন নয়?”

অপরাধ অনুযায়ী কাদের মোল্লার উপযুক্ত শাস্তি মৃত্যুদন্ড না হওয়ায় ফেইসবুক ও ব্লগের মত সামাজিক মাধ্যমগুলোও ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। ফেইসবুক স্টেটাস ও ব্লগে গুরু অপরাধে কাদের মোল্লাকে লঘু শাস্তি দেয়ায় তীব্র সমালোচনায় মুখর হয়ে উঠেছে ব্রিটেনসহ সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তরুণ প্রজন্ম। এদের কেউ কেউ এজন্যে সরকারকেও দায়ী করছেন।

ফেইসবুক ব্যবহারকারীদের অনেকে  অভিযোগ করেছেন, সরকার জামায়াতের হুমকিতে ভয় পেয়েছে। জামাতের সাথে আতাঁত করে আগামী নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চায় আওয়ামী লীগ।

রায়ের প্রেক্ষিতে জনরোষ সম্পর্কে বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাহিত্যিক আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী কাদের বলেন, “জনমতের চাপে আদালত কখনও প্রভাবিত হতে পারে না। আইন ও প্রমাণের ভিত্তিতেই আদালত শাস্তি নির্ধারণ করে থাকেন।”

এদিকে বিচারকে প্রহসন আখ্যা দিয়ে কাদের মোল্লাসহ সকল যুদ্ধাপরাধীদের মুক্তির দাবিতে মঙ্গলবার লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে বিক্ষোভ করে জামাত সমর্থক প্রবাসী বাংলাদেশিরা।


বাংলাদেশ সময়: ২০৫৮ ঘণ্টা, ফেব্রয়ারি ০৫, ২০১৩
Link to the Article




0 comments:

Post a comment

Popular Posts