Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

banglanews24.com:::: লন্ডনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হরতালের নামে নৈরাজ্য সহ্য করা হবে না

লন্ডন: হরতালের নামে নৈরাজ্য সহ্য করা হবে না বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। রোববার স্থানীয় সময় রাত ৮টায় পূর্ব লন্ডনের ওয়াটার লিলি ব্যাঙ্কুইটিং হলে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক সমাবেশে বক্তৃতা করছিলেন তিনি।

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ সভাপতি সুলতান শরীফের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফারুকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, হরতাল একটি গণতান্ত্রিক অধিকার হলেও নিজেদের জানমালের নিরাপত্তা পাওয়াও জনগনের সাংবিধানিক অধিকার। সুতরাং হরতালের নামে যেকোন ধরনের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে সরকার কঠোর অবস্থান গ্রহণে পিছপা হবে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় আদালতের রায়ের প্রতি আমাদের সবাইকে শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। এটি কি তিনি অন্যায় কিছু বলেছেন? তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থাকে অসাংবিধানিক বলে রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এখানে সরকারের কি করার আছে?‘

 তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘৫জুনের হরতাল বিরোধী দল কার বিরুদ্ধে পালন করলো? এটি কি সুপ্রিম কোর্টের বিরুদ্ধে?’

 হরতারেল আগের রাতে ঢাকায় ১২টি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার নিন্দা করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ব্রিটেন প্রবাসীদের কাছে জানতে চান, ‘জ্বালাও পোড়াও এর মাধ্যমে যে ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম চালানো হচ্ছে এটি কি মেনে নেয়া যায়?’

বিরোধী দলীয় নেত্রীর দিকে ইঙ্গিত করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, ‘নিজের দুর্নীতিবাজ সন্তানদের রক্ষার জন্যে তিনি পুরো জাতিকে জিম্মি করতে চাইছেন, এটি হতে দেওয়া যায় না। আইন নিজস্ব গতিতে চলবে, দুর্নীতিবাজ প্রমাণিত হলে তারেক রহমান কেন, কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।’


 যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, লন্ডনে অবস্থানরত অভিযুক্ত দুই যুদ্ধপরাধীসহ শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী সবাইকেই কাঠগড়ার দাঁড় করানো হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য পমান সাপেক্ষে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইবোনাল এসব বিষয়ে ব্যবস্থা নেবে।

২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা ও দশট্রাক অস্ত্র মামলাসহ বিগত সরকারের আমলে সংঘটিত রাজনৈতিক হত্যাকান্ডগুলোর বিচারও করবে এই সরকার, সমবেত শ্রোতাদের এমনই আশ্বাস দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি তারেক রহমানের নাম উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দেশকে লুটেপুটে খেয়ে তিনি এখন লন্ডনে বসে সরকার ও দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন।’ এই ষড়যন্ত্র যাতে বাস্তবায়িত না হয় সেদিকে নজর রাখার জন্যে প্রবাসীদের  প্রতি আহবান জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রবাসীদের সমস্যা সম্পর্কে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, পুলিশ হেড কোয়াটারে প্রবাসী মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে।

এছাড়া প্রতি শুক্রবার তিনি তার বাসভবনে নিজে জনগণের কথা শোনেন বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সমস্যা থাকলে প্রবাসীদের তার সাথে সরাসরি দেখা করারও পরার্শ দেন তিনি।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, চট্রগ্রাম থেকে নির্বাচিত আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু এমপি ও টাঙ্গাইলের মির্জাপুর থেকে নির্বাচিত  একাব্বর হোসেন এমপি। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রহিমা আক্তার, সামসুদ্দিন মাষ্টার, হরমুজ আলী, মারুফ চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাব উদ্দিন চঞ্চল, ইউকে ছাত্রলীগের সভাপতি জোবায়ের আহমদ, সেক্রেটারী ঝলক পাল, সিলেট সিটি কপোরেশনের কাউন্সিলার সালেহ আহমদ সেলিম. যুক্তরাজ্য যুবলীগের সেক্রেটারী সেলিম খান, সভাপতি ফখরুল ইসলাম মধু, মহিলা লীগের মুসলিমা খানম প্রমুখ।

সমাবেশ চলাকালীন হলের বাইরে কয়েকজন হিযবুত তাহরির সদস্য সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে। পুলিশ অবশ্য হিযবুত তাহরির সদস্যদের ঘেরাও করে রাখে। পুলিশ বেষ্টুনীর ভেতরেই তারা বাংলাদেশ সরকার বৃটেন-আমেরিকা ও ভারত বিরোধী স্লোগান দেয়।
বাংলাদেশ সময়: ২১৩৫ ঘণ্টা, জুন ০৬, ২০১১
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts