Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

সমকাল: ব্রিটেনে বাঙালির স্বপ্ন পূরণ করতে চাই : রুশনারা

লন্ডনে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এমপি রুশনারা আলী । সমকাল
সৈয়দ আনাস পাশা, লন্ডন
ব্রিটিশ পার্লামেন্টে সদ্য নির্বাচিত প্রথম বাঙালি এমপি রুশনারা বলেছেন, আমি বাঙালির স্বপ্ন পূরণ করতে চাই। আমি বিশ্বাস করি নিজেকে সংকীর্ণ গণ্ডিতে আবদ্ধ না রেখেও কমিউনিটিকে প্রতিনিধিত্ব করতে পারব। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে জন্ম নেওয়া একটি সাহসী জাতির মেয়ে হিসেবে তার গর্বের শেষ নেই। সমকালকে দেওয়া টেলিফোন সাক্ষাৎকারে রুশনারা আলী বলেন, মাত্র সাত বছর বয়সে লন্ডনে এলেও অভিভাবকদের বদৌলতে নিজ মাতৃভূমির সঙ্গে যোগাযোগ সবসময়ই ছিল। তিনি বলেন, ব্রিটিশ এমপি হলেও মাতৃভূমির প্রতি দায়িত্ব কম নয়। রুশনারা বলেন, জাতি, গোষ্ঠী, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবার এমপি আমি। তবে বাংলাদেশেই যে আমার পূর্বপুরুষের মূল শিকড়, সেটা ভোলার বিষয় নয়। বাংলাদেশ ও ব্রিটেনের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের এবং এটি পরীক্ষিত একটি সম্পর্ক। বাংলাদেশের জন্মলগ্নের প্রক্রিয়ায় ব্রিটিশ সমাজ ও রাষ্ট্রের অবদান আছে। সেই সময় লেবার সরকার ও এমপিদের অবদানের কথা আমরা আমাদের পূর্বপুরুষদের কাছ থেকে জেনেছি। আমরা জানি, মুক্তিযুদ্ধের সময় এখানকার এমপি পিটার শোর কীভাবে কাজ করেছেন। ব্রিটিশ-বাংলাদেশ সম্পর্ক একটি শক্ত ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়ে আছে বলে আমি মনে করি।
রুশনারা বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকাটি মাল্টিকালচারাল ব্রিটেনের একটি আদর্শ অংশ। আমি সবার এমপি হতে চাই। তিনি বলেন, সঙ্কীর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে চললে চূড়ান্ত বিচারে আমরা হেরে যাব। হেরে যাওয়ার এ ক্ষতি সহজে পূরণ হবে না। ব্রিটেনের সমাজ ব্যবস্থার সঙ্গে খাপ খাওয়াতে হলে অবশ্যই আমাদের কৌশলী ও দূরদৃষ্টিসম্পন্ন হতে হবে।
তিনি বলেন, এখনও বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় দাতা দেশ ব্রিটেন। জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত ইস্যুতেও ব্রিটেন বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছে। এ বিষয়গুলো আমার বিবেচনায় অবশ্যই আছে। কূটনৈতিক সীমাবদ্ধতার মধ্যেও বাংলাদেশ-ব্রিটেন সম্পর্ক বিকাশে আমার ভূমিকা যতটুকু সম্ভব আমি পালন করে যাব।
রুশনারার সাফল্যে বাঙালি কমিউনিটিতে উৎসব
এদিকে রুশনারা আলী ব্রিটিশ পার্লামেন্টে এমপি নির্বাচিত হওয়ায় বিলেতের বাঙালি কমিউনিটিতে চলছে উত্তাল আনন্দ। লন্ডনসহ দেশের বিভিন্ন শহরে আনন্দ সমাবেশ, মিষ্টিমুখ করানো চলছে অবিরত। বিশিষ্ট সাংবাদিক, সাহিত্যিক আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী সমকালকে বলেন, নির্বাচনী ফলের মাধ্যমে রুশনারা অসাম্প্রদায়িক চেতনার পক্ষে বাংলাদেশসহ বিশ্বের মুক্তিকামী জনগণের প্রতিনিধি হিসেবে আভির্ভূত হয়েছেন। আমি আশা করি গণতন্ত্রের সূতিকাগাড় ব্রিটিশ পার্লামেন্টে বিশ্ব শান্তি, সভ্যতা ও গণতন্ত্রের পক্ষে কথা বলবেন তিনি। বর্তমানে লন্ডনে অবস্থানরত আওয়ামী লীগদলীয় সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী সমকালকে বলেন, রুশনারার বিজয় মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী আন্দোলনের বিজয়। তিনি বলেন, লন্ডনে বসবাসরত '৭১-এর চিহ্নিত দুই যুদ্ধাপরাধীর নেতৃত্বে নির্বাচনে রুশনারার বিরুদ্ধে যে অনৈতিক প্রপাগান্ডা চালানো হয়েছিল, এ এলাকার ভোটাররা, বিশেষ করে বাঙালি কমিউনিটি, ভোটের মাধ্যমে তার উপযুক্ত জবাব দিয়েছে।
ইইউ রাষ্ট্রদূতের অভিনন্দন
রুশনারা এমপি নির্বাচিত হওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বাংলাদেশে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ডেলিগেশনের প্রধান স্টিফেন ফ্রোয়েন। তিনি বলেন, রুশনারা আলীর বিজয় বাংলাদেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের গভীর সম্পর্কের প্রতিফলন। এ জয়ের মাধ্যমে এটাই প্রমাণিত হয়, বাংলাদেশ সম্পর্কে ইউরোপের আগ্রহ কতখানি। ইউরোপিয়ান ডে উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গতকাল তিনি এ মন্তব্য করেন।

৯ মে' ২০১০
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts