Syed Anas Pasha

Syed Anas Pasha

ব্রিটেনে আটককৃতদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন, ৭ জনই বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত

লন্ডন: ব্রিটেনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনার অভিযোগে ২০ ডিসেম্বর গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে যে নয় জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে তাদের সাত জনই বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত।

অভিযুক্তদের সবারই বাড়ি বাংলাদেশের সিলেটে। এর মধ্যে গুরুকান্ত দেশাই ছদ্মনামধারী আব্দুল মান্নানও বাংলাদেশি।

সোমবার লন্ডনের ওয়েস্ট মিনিস্টার ম্যাজিট্রেট কোর্টে গ্রেপ্তারকৃত ১২ জনের মধ্যে যে নয় জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে তাদের সবার বয়স ১৯ থেকে ২৮ বছরের মধ্যে। তিন জনকে আদালতে হাজির করার আগেই কোনো অভিযোগ ছাড়া মুক্তি দেওয়া হয়।

তিন গ্র“পে বিভক্ত অভিযুক্ত নয় জনকে চিফ ম্যাজিট্রেট হাওয়ার্ড রিডলের আদালতে হাজির করা হয়।

কড়া পুলিশ পাহারায় প্রথমে আদালতে হাজির করা হয় পূর্ব লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটস ও নিউহ্যাম থেকে গ্রেপ্তার করা বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত মোহাম্মদ মকসুদুর রহমান চৌধুরী (২০) এবং শাহ মোহাম্মদ লুৎফুর রহমানকে (২৮)।

দ্বিতীয় পর্যায়ে আদালতে হাজির করা হয় কার্ডিফ থেকে গ্রেপ্তারকৃত  গুরুকান্ত দেশাই ছদ্মনামধারী আব্দুল মান্নান (২৮), ওমর শরীফ লতিফ (২৬), আব্দুল মালিক মিয়াকে (২৪)। গুরুকান্ত দেশাই ওরফে আব্দুল মান্নান ও আব্দুল মালিক মিয়া সম্পর্কে দুই সহোদর।

তৃতীয় পর্যায়ে আদালতে হাজির করা হয় স্টোক অন ট্রেন্টের নিজাম হোসেন (২৫), উসমান খান (১৯), মহিবুর রহমান (২৬) ও আবুল বশর মোহম্মদ শাহজাহানকে (২৬)। এর মধ্যে মহিবুর রহমান ও আবুল বশর মোহাম্মদ শাহজাহান বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত। অপর বাকী দুইজনের জাতীয়তা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

অভিযুক্ত নয় জনের বিরুদ্ধে নাশকতার সৃষ্টির লক্ষ্যে হামলা ও বিস্ফোরক তৈরির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়।

অভিযুক্ত গুরুকান্ত দেশাই ওরফে আব্দুল মান্নান ও আব্দুল মালিক মিয়া আদালতে জামিনের আবেদন করলে আদালত তাদের আবেদন নামঞ্জুর করে অভিযুক্তদের পুলিশ কাষ্টডিতে রাখার নির্দেশ দেন।

আগামী ১৪ জানুয়ারী অল্ডবেইলি আদালতে আবার তাদের হাজির করা হবে।

ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিস কাউন্টার টেরোরিজম বিভাগের প্রধান স্যু হেমিং গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে সংগৃহিত সমস্ত আলামত পরীা-নীরিা করে আদালতে অভিযোগ উত্থাপন করেন।

তিনি বলেন, এসব আলামত যথেষ্ট তথ্যভিত্তিক। জনস্বার্থে এই অপরাধীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে।

১০৫ মিনিটের শুনানিতে অভিযোগ করা হয়, আসামিরা ব্রিটেনের গুরুত্বপূর্ণ স্থান, স্টক একচেঞ্জ, লন্ডন আই, লন্ডন মেয়র বরিস জনসনের অফিস ও মার্কিন দূতাবাসসহ অন্যান্য স্থানে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

অভিযোগে আরও বলা হয়, আল কায়েদার অনুসারি এই অপরাধীরা বোমা তৈরির শিক্ষা নিতে ইন্টারনেট থেকে আল কায়েদা ম্যাগাজিন ডাউনলোড করে তা পরীক্ষা-নীরিক্ষা করছিল।

আল কায়েদার অন্যতম শীর্ষ নেতা আনোয়ার আল আওলাকি’র দ্বারা প্রভাবিত অভিযুক্তদের সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্যে বিপদজনক হিসেবে উল্লেখ করে আদালতে এদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০০১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১০
Link to Article

0 comments:

Post a comment

Popular Posts